Menu Close

ভালবাসার গল্পঃ ভালবাসা কি?

ভালবাসার গল্পঃ

ভালবাসা নামটার সাথে আমরা ছোট বড় সবাই পরিচিত। খুব ভাল ভাবে।  ভালবাসা এমন একটা বিষয় যেন পাড়ার ছ’বছরের পিচ্চি ছেলেটাও আজকাল অনেক টা বোঝে। ক্লাস থ্রি তে পড়া মেয়েটাও ভাঙা ভাঙা হাতে প্রেমপত্র লিখেই ফেলে। ক্লাস টেনে পড়া ছেলেটা দশটা প্রেম করে দশটা প্রাক্তন বানিয়ে ফেলে। যখন বন্ধুদের সাথে আড্ডা দেয় তখন সগৌরবে বন্ধুদের বলে আমার প্রাক্তন গুলা আমারে খুব প্যারা দিছে। তাই ছেড়ে দিয়েছি।

আর অন্যদিকে কোন কলজে পড়ুয়া মেধাবী মেয়েটাও একদিন কারো ভালবাসার ফাঁদে পা দিয়ে দেয়।  কিন্তু দুই চার ছয় মাস না যেতেই শোনা যায় মেয়েটা হাতের রগ কেটে মরে যাবার চেষ্টা করেছিল। কেউবা আবার ভালবাসায় আজীবন সুখ কুড়িয়ে পাশাপাশি প্রিয়জনের হাতে হাত রেখে একই পায়ে পা ফেলে এডজাস্ট করে সংসার করে চলেছে।

মানুষ মরে গেলে পচে যায়, বেঁচে থাকলে বদলায়, কারণে-অকারণে বদলায়

কিন্তু কয়জন ই বা সংসার করে! ভালবাসার প্রতিশ্রুতি দেওয়া সহজ। সময় বদলে যায় ইগোলোভি মানুষেরাও বদলে যায়, মানুষ খুব সহজেই ভুলে যায় কিছুদিন আগে আমি একজনকে ওয়াদা দিয়েছিলাম ভালবাসি বলে। ভুলে যায়, ভুলে গিয়ে দিব্যি অন্য কারো স্বপ্নে বিভোর হয়ে যায় আবার সহজেই। আর অন্যদিকে সে কেঁদে বা সুইসাইড করে জীবন থেকে মুক্তি নেওয়ার চেষ্টা করছে কেউবা ভালবাসি বলে হাত ধরে বলেছিল অর্থ সম্পদ কিছু না ভালবাসা টাই বড়।

কিন্তু ক্ষানিক সময় বা দিন যাবার পরে খুব সুন্দর করে হাতটা ছাড়িয়ে দিয়ে বলে গেল তোমার সাথে যায়না। কেউবা অপমান আত্নসম্মানে লাগার ফলে দূরে গিয়ে নিজের ক্যারিয়ার গড়ে আর ভাবে একদিন দেখিয়ে দিবো। কেউবা বছরের পর বছর ভালবেসে দেখিয়ে পরিণতি চাইলে ফ্যামিলির দোহায় দিয়ে দূরে চলে যায়। কেউবা বিয়ে করে ভালবাসার মানুষ টাকে কাছে পেয়েও জীবন সঙ্গী হিসেবে পেয়েও সংসার জীবনে সামান্য ভূল ত্রুটিকে ইয়া বড় করে দেখে সব কিছু ভেঙে দেওয়ার নেশায় বুঁদ থাকেন।

ভালবাসা কি এবং ভালবাসা কাকে বলে ?

ভালবাসা হচ্ছে স্ট্রং এবং ইতিবাচক আবেগগত এবং মানসিক অবস্থা, ভালবাসা একটি মহৎ গুণ বা ভাল অভ্যাস, ভালবাসার গভীরতা আন্তব্যক্তিক স্নেহ থেকে সরল আনন্দ পর্যন্ত।

উপরে এইত ভালবাসার চিত্র! ভালবাসার কত চিত্র! ভালবাসা যতক্ষন দূরে আছে ভালবাসা আছে কোন কমিটমেন্ট বা অধিকার দেখাতে যাও ভালবাসা পালাবে। ভালবাসা বলতে আসলে কি মানুষ এই যে ভালবাসা, ভালবাসা বলে যে চিল্লায় আমি তোমাকে ভালবাসি আসলে কি মানুষ ভালবাসার মানুষ চলে গেলে বা চলে যাবে এই জন্য চিল্লায়। ভালবাসার মধ্য কি আছে? আমার মতে মানুষ মানুষের মায়ায় পড়ে, মানুষ তো।মানুষের কথার মায়ায় পড়ে কথার মায়ায় পড়ে তার সব কিছুর মায়ায় পড়ে। মায়া খুব খারাপ জিনিস জীবনে।

মানুষ কাঁদে দুঃখী হয় এই শোকে যে মানুষ টা একদিন এত মায়াময় কথা বললো সেই মানুষ আজ আমার হাত ছেড়ে দিলো বা দূরে চলে গেল। কিন্তু মানুষের ধর্ম এইটা মাঝপথে মীর জাফরের মত হাত ছেড়ে দিয়ে বা পিছন থেকে ছুরি মেরে মানুষের সর্বনাশ করা। মানুষ হল মানুষের সবচেয়ে বড় দুশমন। আমার মতে ভালবাসা বলতে কিছু নেই।যদি ভালবাসা থাকতো তবে যদিই মায়া থাকতো তবে বিভিন্ন অজুহাত দিয়েও হাত ছাড়তো না।

যার জন্য আপনি সব কিছু ফেলে হাত ধরবেন সেই হাত আপনার সাথে বেঈমানি করবে।আপনি নিজেকে ভালবাসা নিজের প্রতি নিজের মায়া বাদ দিয়ে অন্যর মায়ায় পড়ে অন্যর অস্তিত্ব কে গুরুত্ব দিবেন খেয়াল রাখবেন তবে আপনি নিজের মায়া বাদ দিয়ে এতদিন যার একটু জ্বর হলেও টেনশন করে রাত পার করে দিলেন সেই ভোর হতে না হতেই আপনার মায়া কাটিয়ে আপনাকে আপনার অবস্থান বুঝিয়ে দিয়ে দূরে চলে যাবে।

আগে ক্যারিয়ার, তারপর ভালবাসা

আমার মতে ক্যারিয়ার গড়া সবার দায়িত্ব। ভাল ক্যারিয়ার জীবনের সব কিছু পাইয়ে দেয়।সুশান্ত স্যারের লেখায় পড়েছি একদিন সব কিছু দিয়ে ভালবাসি বলা লোকটাও তোমার যোগ্যতা নিয়ে কথা বলবে। ভাল ক্যারিয়ার থাকলে ভালবাসার প্রয়োজন পড়েবেনা আপনার কাউকে সবাই আপনাকে ভালবাসা দেখাবে এগিয়ে এসে। আর সেই ভালবাসায় আসল ভালবাসা।ভালবাসা তোমাকে অমরত্ব দিবে কিন্তু ভাল ক্যারিয়ার দুঃখ দিয়ে মাঝ পথে চলে যাবেনা বরং ভাল একটা জীবন দিবে।

আজ ভালবাসি বলে কাল ছলনা করে চলে যাবে কিন্তু ভাল ক্যারিয়ার থাকলে মানুষ ছলনা করার আগেও দশবার ভাববে। আমি এমন ও কারো জীবন দেখেছি আমার কাছে এসেছে কেঁদেছে আর বলেছে আপু আমি কখনো মা হতে পারবো না, আমি অন্য দশটা মেয়ের মত স্বাভাবিক না, আমাকে প্রতিমাসে ব্লাড দিতে হয়। আমার মাইগ্রেন এর প্রবলেম আছি। আমাকে শারিরিক ভাবে মোটাতাজা হলেও আপনাদের মত স্বাভাবিক কেউ না জেনেও একটা ছেলে আমাকে কথা দিয়েছিল ভালবাসি বলে বিয়ে করতে চেয়েছিল, মা না হতে পারলা আমার চলবে।

আমি তোমাকে ভালবাসি বলে বিয়ে করেছিল। আমিও বিশ্বাসে আর মায়ায় বুঁদ হয়ে বিয়ে নামের কঠিন ফয়সালা টা তার সাথেই করে ফেলেছিলাম। কিন্তু এখন সে আমাকে নিতে চায়না। পরিবারের দোহায় দিয়ে আমি মা হতে পারবোনা বলে আমাকে ছেড়ে দিতে চায়। বার বার কথায় কথায় আমার অক্ষমতাকে মনে করিয়ে দেয়।

এমন হাজার হাজার বেদনার গল্প আছে। আত্নহত্যা করার গল্প আছে। এই যদি হয় ভালবাসার নমুনা। দরকার নেই। হাত ধরার আগে ভাবতে হয় আমি তার জীবনের তার চোখের পানি কত টুকু আটকাতে পারবো। না ভেবেই হাত ধরে মাঝ রাস্তায় এসে যখন মায়ায় পড়ে তখন ছেড়ে চলে যায়। তাই নিজে স্বাবলম্বী হউন যেন কেউ মাঝ রাস্তায় ছেড়ে না যায়।আর ছেড়ে গেলেও যেন আপনার উজ্জল ক্যারিয়ার থাকে।

মানুষ মরে গেলে পচে যায়, বেঁচে থাকলে বদলায়

মুনীর চৌধুরী রচয়িত ‘রক্তাক্ত প্রান্তর’ নাটকের খুব বিখ্যাত ও জনপ্রিয় একটি লাইন হলো- ‘মানুষ মরে গেলে পচে যায়, বেঁচে থাকলে বদলায়, কারণে-অকারণে বদলায়।’ এই একটা লাইনই যথেষ্ট পুরো বাস্তবতাকে তুলে ধরার জন্য। প্রতিটা মানুষ জীবনের বিভিন্ন ধাপে, বিভিন্ন কারণে বদলায়। এটাই স্বাভাবিক। সঠিক মানুষের সাথে জীবনের সবকিছুই সহজ” জীবনের কোনকিছুই কখনো সহজ নয়। বিশেষ করে ভালোবাসার সম্পর্কের ক্ষেত্রে সবসময়ই অনেক বাধাবিপত্তি, ঝামেলা, সমস্যা থাকবেই।

ভালবাসার গল্প যেটা আপনি জানেন না

সম্পর্কের শুরুর দিকে সবকিছুকেই অনেক রঙিন এবং আনন্দময় বলে মনে হবে। তবে এই সময়টা পার হয়ে যায় খুব দ্রুত। এরপর প্রতিটি ধাপেই লড়ায় করে এগিয়ে যাওয়া। তবে বলা যেতে পারে, সঠিক মানুষের সাথে জীবনের লড়াইগুলো করা সহজ হয়ে যায়। ভালোবাসার সম্পর্ককে ধরে রাখা, একসাথে লড়াই করে এগিয়ে যাওয়ার মতো ব্যাপারগুলো এতোটাও সহজ নয়

যখন কিছু কিছু মানুষ নিজেকে একান্তই ভালবাসে ঠিক তখন ই জীবনে দুঃখ এলে মোকাবেলা না করে নিজেকে নিয়ে পালায় সমস্যাটা এই জায়গায়। তাই ক্যারিয়ার সবার আগে ক্যারিয়ার গড়ে তুলুন রাতের ঘুম নষ্ট করে ভাল সময় পাবেন। কিন্তু রাতের ঘুম বা অন্য কোন স্যাক্রিফাইস করেও আজ যার জন্য যা কিছু করছেন তা এক সময় ভূল প্রমানিত হবে।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *